মাসায়েলে জাহিলিয়া দারস (ইসলাম ও জাহেলিয়াত এর দ্বন্দ)

মাসায়েলে জাহিলিয়াআবূ সুমাইয়া মতিউর রহমান

মাসায়েলে জাহিলিয়া দারস বিষয় সমূহে আমাদের প্রিয় নবী মুহাম্মাদুর রাসূলুল্লাহ্ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম জাহেলী যুগের আরবদের এবং আহলে কিতাব ইয়াহুদী নাছারাদের বিরোধিতা করেছিলেন। নিম্নোক্ত বিষয়গুলি প্রত্যেক মুসলিমের জেনে রাখা অবশ্য প্রয়োজন। কেননা, বিপরীত বস্তু সম্পর্কে জানা থাকলেই কেবল আসল বস্তু চেনা সম্ভব হয়। তবে এখানে সর্বাপেক্ষা ভয়ের ব্যাপার যেটি, সেটি হলো সরাসরি আল্লাহর রাসূল সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম আনীত দ্বীন সম্পর্কেই ঈমান না রাখা। আর ঐ সংগে যদি কেউ জাহেলিয়াতের দ্বীনকেই ভালবাসে এবং তার উপরেই ঈমান আনে, তাহলে তো ক্ষতির আর শেষ থাকে না। (আল্লাহ আমাদেরকে রক্ষা করুন)। যেমন আল্লাহ স্বীয় পাক কালামে ইরশাদ করেন

وَالَّذِينَ آَمَنُوا بِالْبَاطِلِ وَكَفَرُوا بِاللَّهِ أُولَئِكَ هُمُ الْخَاسِرُونَ . (سورة العنكبوت : ৫২)
‘যারা বাতিলের উপর ঈমান আনলো এবং আল্লাহর সাথে কুফরী করলো, তারাই সত্যিকারের ক্ষতিগ্রস্ত।’ (সূরা আনকাবুত : ২৯ : আয়াত ৫২)

আর তাই আল্লাহর বিশুদ্ধ তাওহীদের দাওয়াতের প্রয়োজনীয়তা অনুধাবন করে শাইখ মুহাম্মাদ বিন সুলায়মান আত-তামিমি(রাহিমাহুল্লাহ) আল্লাহর তাওহীদের উপর এই অমূল্য গ্রন্থটি রচনা করেন। এতে লেখক (রাহিমাহুল্লাহ) তাওহীদের অর্থ ও ফাযিলত, তাওহীদের বিপরীত শিরক এর প্রকারভেদে এর ভয়াবহতা সহ আরো অনেক বিষয়ে আলোচনা করেছেন। আর এরই ধারাবাহিক আলোচনা দেয়া হল অডিও রুপে।


আগের দারস সমুহঃ ১-৪৪ পরের দারস সমুহঃ ৯১-১২৮
অধ্যায়-৯১ [সত্য ও অসত্যের উপর অহংকার করা] অধ্যায়-৯২ [ কট্টরপন্থীতা ] অধ্যায়-৯৩ [ একজনের দোষ অন্যের উপর চাপানো ]
অধ্যায়-৯৪,৯৫ [ আল্লাহর দেয়া বিষয় নিয়ে অহংকার করা] অধ্যায়-৯৬ [আত্মহংকার করা] অধ্যায়-৯৭ [আউলিয়া ও দ্বীনদার ব্যাক্তিদের সাথে নিজেদের সম্পর্ক মিলিয়ে দেয়া]
অধ্যায়-৯৮ [ দুনিয়ার পদবীর কারনে দ্বীনকে গ্রহন না করা] অধ্যায়-৯৯ [] অধ্যায়-১০০ []
অধ্যায়-১০১ [ ] অধ্যায়-১০২ [] অধ্যায়-১০৩ []
অধ্যায়-১০৪ [ ] অধ্যায়-১০৫ [] অধ্যায়-১০৬ []
অধ্যায়-১০৭ [ ] অধ্যায়-১০৮ [] অধ্যায়-১০৯ [১]
অধ্যায়-১০৯ [২] অধ্যায়-১১০ [] অধ্যায়-১১১ []
অধ্যায়-১১২ [] অধ্যায়-১১৩ [] অধ্যায়-১১৪ []
অধ্যায়-১১৫ [] অধ্যায়-১১৬ [] অধ্যায়-১১৭ []
আগের দারস সমুহঃ ১-৪৪